পায়েল হত্যার অভিযুক্ত চালক জামিনে বাস চালাচ্ছেন

আট মাসেও সুরাহা হয়নি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে হানিফ বাস থেকে ফেলে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র পায়েল হত্যা মামলার। অভিযুক্ত ৩ আসামি জামিনে মুক্ত থাকায় হতাশায় দিন কাটছে পরিবারে। এতে বিচার পাওয়া নিয়ে শঙ্কা বাড়ছে পায়েলের স্বজনদের। নানা আলোচনা-সমালোচনার মধ্যেই উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়ে আবারো বাস চালাচ্ছে অভিযুক্ত চালক জামাল।
গত বছরের ২২ জুলাই রাতে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দিয়ে হত্যা করা হয় রাজধানীর নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সাইদুর রহমান পায়েলকে। এমনকি লাশ গুমের জন্য ফেলে দেয়া হয়েছিল পার্শ্ববর্তী নদীতে। পরদিন পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।
এ ঘটনায় বাস চালক জামাল, সুপারভাইজার জনি এবং হেলপার ফয়সালকে আসামি করে পরিবারের পক্ষ থেকে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া থানায় মামলাও করা হয়। নানা আন্দোলন সংগ্রামের পর মামলা যখন বিচারের জন্য চট্টগ্রামের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়, তখন জানা যায় আসামি ৩ জনই গত ডিসেম্বরে উচ্চ আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে গেছে।
মামলার বাদী গোলাম সরওয়াদ্দী্ বিপ্লব বলেন,  ‘২ জন আসামি ওয়াস সিক্সটিফোর দেওয়ার পরও জামিনে আছে। আমরা চাই আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচার কার্য যেন শুরু হয়।’
এর মধ্যে অভিযুক্ত বাস চালাক জামাল ঢাকা-চট্রগ্রাম-কক্সবাজার রুটে বাস চালাচ্ছেন অভিযোগ উঠেছে। একই সঙ্গে জামিনে মুক্ত হওয়া আসামিদের হুমকির কারণে নানা শঙ্কার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে পায়েলের পরিবার।
আগামী ২৭ মার্চ মামলায় চার্জ গঠনের নতুন তারিখ ধার্য করা হয়েছে।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *